মেনু নির্বাচন করুন

পিবিএম আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

0

১৯৯৫ইং

অবিভক্ত পার্বত্য চট্টগ্রামের (খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি ও বান্দারবন) দরিদ্র জনগোষ্ঠির বিশেষভাবে দুঃস্থ, এতিম ছেলে/মেয়েদের বিনামূল্যে পড়ালেখার সুযোগ দিয়ে তাদেরকে দেশের কর্মক্ষম সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষে পার্বত্য বৌদ্ধ মিশন কর্তৃক ১৯৯৫খ্রি: অত্র পিবিএম আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৯৯৮খ্রি: ৯ম শ্রেণীতে পাঠদানের অনুমতি ও ২০০০খ্রি: এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের অনুমতি ও একই বছরে জুনিয়র হাই স্কুলের এমপিও ভূক্তি লাভ করে। এবং ২০০৩খ্রি: হাই স্কুল/উচ্চ বিদ্যালয়ের স্বীকৃতি লাভ করে। প্রতিষ্ঠাকাল থেকে অদ্যবদি অত্র বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণী পর্যন্ত সকল শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে পড়ালেখা করার সুযোগ বর্তমান রয়েছে।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
নিউটন চাকমা ০১৫৫৬৭৭৩১৮৫ pbmschool@yahoo.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

শ্রেণী

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

৬ষ্ঠ

৩১

২৯

৬০

৭ম

২১

১৯

৪০

৮ম

৩১

৩১

৬২

৯ম

২৬

১৬

৪২

১০ম

১৬

১৫

৩১

৭৫%

সভাপতি-০১জন, শিক্ষক প্রতিনিধি-০২জন, মহিলা শিক্ষক প্রতিনিধি-০১জন, অভিভাবক সদস্য-০৩, মহিলা অভিভাবক সদস্য-০২জন, শিক্ষানুরাগী সদস্য-০১জন, প্রধান শিক্ষক/সম্পাদক-০১জন। কার্যকাল-১৪/০৮/২০১২ খ্রি: থেকে ১৪/০৭/২০১৪খ্রি: পর্যমত্ম।

২০০৯

২০১০

২০১১

২০১২

২০১৩

৬২.২২%

৬৪.৭০%

৬৬.৬৭%

৪৮.২৭%

৬৫%

বিগত ২০১২খ্রি: খাগড়াছড়ি সদরের দক্ষিনাংশের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, চট্টগ্রাম কর্তৃক অত্র বিদ্যালয়ে জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র: খাগড়াছড়ি-৪, কেন্দ্র কোড: ৩৭০ নামে একটি জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়।

খাগড়াছড়ি সদরের দক্ষিনাংশে তথ্য প্রযুক্তি সমৃদ্ধ একটি আদর্শ বিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলা এবং একটি এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করা।

খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদ থেকে ০৭.০০ (সাত) কি.মি. দক্ষিনে পাইলটপাড়া, কমলছড়িতে অবস্থিত পিবিএম আবাসিক উচ্চ বিদ্যালয়ে পাকা রাস্তায় রিক্সা, অটো রিক্সা এবং হাটবারের দিনে খোলা জীপে করে আসা-যাওয়া করা যায়।



Share with :

Facebook Twitter